২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে জয় পেল ম্যানইউ, চেলসি ও লিভারপুল

রবিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৫

টেকনাফবার্তা ২৪ ডটকম  

1419652178589723164স্পোর্টস নিউজ : ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে (ইপিএল) ওয়াটফোর্ডের মাঠে জয় পেয়েছে অতিথি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। স্বাগতিকদের ২-১ গোলে হারিয়েছে রেড ডেভিলরা। এছাড়া, নিজেদের মাঠে নরউইচ সিটিকে ১-০ গোলে হারিয়ে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে মরিনহোর চেলসি।

অন্যদিকে, বিগ ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটিকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে লিভারপুল।

ভিসুরাজ রোড স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমনত্মক ফুটবল খেলতে থাকে ম্যান ইউনাইটেড। ফলাফলটাও দ্রুতই পেয়ে যায় তারা। ম্যাচের ১১ মিনিটে আন্দ্রে হেরেরার অ্যাসিস্ট করা বলে দুর্দান্ত ফিনিশিং করেন মেমফিস ডিপে। আর এতে করেই ম্যাচে ১-০তে লিড নেয় ফন গালের শীষ্যরা। এরপর, আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে খেলা গড়ালেও গোলের দেখা পাচ্ছিলো না কোন দলই। ম্যাচ শেষ হবার মিনিট তিনেক আগে পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে ওয়াটফোর্ডের হয়ে সমতা আনেন ট্রয় ডিনেই। কিন্তু, একেবারে শেষ মুহূর্তে সেই ডিনেই আত্মঘাতী গোল করলে হার নিশ্চিত হয়ে যায় ওয়াটফোর্ডের।

অন্যদিকে, নিজের চাকুরী নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় থাকা চেলসি বস মরিনহোর দল নিজেদের মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রীজেও যেন ছিল বেশ ছন্নছাড়া। নিজেদের গুছিয়ে নিতেই বেশ ব্যস্ত ছিলো অল ব্লুজরা। ম্যাচের প্রথমার্ধে বেশ কয়েকবার নরউইচ সিটির সীমানায় আক্রমণ শানালেও গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য নিজেদের দুর্দশা কিছুটা হলেও কাটিয়ে ওঠে মরিনহো বাহিনী। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে ফ্যাব্রিগাসের অ্যাসিস্ট করা বলে দারুণ ফিনিশিং উপহার দেন দিয়েগো কস্তা। ১-০ তে এগিয়ে গিয়ে কিছুটা রক্ষণাত্মক হয়ে পড়ে চেলসি। ফলে ম্যাচে আর কোন গোল না হওয়ায় ঐ একমাত্র গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। এই জয়ের পরও ১৩ ম্যাচে মাত্র ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ১৫ নম্বরে পড়ে রয়েছে লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এদিকে, লিগের বিগ ম্যাচে লিভারপুলকে আতিথ্য দেয়ার স্বাদটা যেন তিক্ততার মধ্য দিয়েই কেটেছে স্বাগতিক ম্যানচেস্টার সিটির। এতিহাদ স্টেডিয়ামে আতিথ্য নিতে এসে শুরু থেকেই সিটিজেনদের ওপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে লিভারপুল।

ম্যাচের ৭ মিনিটে ম্যান সিটির মানগালা আত্মঘাতী গোল করলে এগিয়ে যায় অল রেডরা। এরপর ২৩ মিনিটে একটি অল ব্রাজিলিয়ান আক্রমণ থেকে গোল করে লিভারপুলের হয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কৌতিনহো। যেখানে বলের যোগানদাতা ছিলেন রবার্তো ফিরমিনো। এরপর ম্যাচে ৩২ মিনিটে তারা দু’জন আবারো সিটিজেনদের রক্ষণ দুর্গ ভেঙ্গে আদায় করে নেন নিজেদের তৃতীয় গোল। এবার বলের যোগানদাতা কৌতিনহো আর গোলদাতা ফিরমিনো।

এরপর ম্যাচের ৪৪ মিনিটে সিটিজেনদের হয়ে অ্যাগুয়েরো একটি গোল শোধ করলেও স্কারটেল ৮১ মিনিটে আরো একটি গোল করলে ৪-১ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইয়ূর্গেন ক্লপের দল।

টেকনাফ বার্তা ২৪ এ প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য




Leave a Reply

Your email address will not be published.