১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

পারিবারিক কলহের জেরধরে বড় ভাই এর স্ত্রীকে উপর্যুপরি চুরিকাঘাত

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০১৬

tek murderটেকনাফবার্তা২৪ডটকম : টেকনাফে পারিবারিক কলহের জেরধরে বড় ভাই এর স্ত্রীকে উপর্যুপরি চুরিকাঘাত করে খুন করা হয়েছে। তবে ছোট ভাই এর স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। এ দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক মহিলাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২৩ জুন বৃহস্পতিবার ভোরে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরায় নিজ বাড়িতে সেহেরী খেয়ে প্রতিদিনের ন্যায় বড় ভাই এর স্ত্রী মরিয়ম ঘুমিয়ে পড়ে। সকাল ৬টারদিকে ছোট ভাই এর স্ত্রী হাসিনা বড় জা মরিয়মের বাড়ি ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় উপর্যুপরি চুরিকাঘাত করলে সে চিৎকার দিয়ে উঠে। এ শোর-চিৎকারে পাশ্বের লোকজন এগিয়ে এসে হাসিনাকে আটক করে। এদিকে মরিয়মকে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে নেওয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কক্সবাজার হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়। স্বামী কক্সবাজার নিতে গাড়ি আনতে যায় এবং ফিরে এলে মরিয়ম মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর পর পোস্ট মর্টেমের জন্য লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। স্থানীয় মেম্বার মোহাম্মদ আলী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়,স্থানীয়  মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াছ ও ভাই মোহাম্মদ ইউনুছ একই স্থানে স্বপরিবারে বসবাস করে আসছে। সম্প্রতি ছোট ভাই মোহাম্মদ ইউনুছের সংসারে ৩সন্তানের জম্ম ঘটে। ইতিমধ্যে স্ত্রী হাসিনা ও স্বামী ইউনুছের মধ্যে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। স্ত্রী হাসিনা বড় জা ৫সন্তানের জননী মরিয়মকে নিয়ে স্বামীর পরকীয়ার অভিযোগ এনে সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তি,মেম্বার ও চেয়ারম্যানের নিকট সালিশ দায়ের করে। তারা তদন্ত স্বাপেক্ষে এই জাতীয় কোন ধরনের তথ্য পায়নি বলে জানা যায় । এরফলে ইউনুছ ও হাসিনার সংসারে দ্বন্দ চরম আকার ধারণ করে। গত ২২জুন ফাইনাল সালিশে স্বামী স্ত্রী হাসিনাকে তালাক প্রদান করে এবং স্থানীয় চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সালিশ তা কার্যকর করে। আগামী ২৫জুন সে চলে যাওয়ার কথা ছিল। সে মনে মনে ভাবে বড় জা মরিয়মের পরকীয়ার কারণে ৩সন্তানদের ফেলে তাকে স্বামীর ঘর ছাড়তে হচ্ছে বলে ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে এবং মরিয়মকে দেখে নেওয়ার প্রতিজ্ঞা করে। এরই জেরধরে এই নৃশংস ঘটনার সুত্রপাত বলে উপস্থিত সকলে ধারণা করছেন।

এদিকে খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার এসআই মাসুদ মুন্সী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশসহ ঘাতক হাসিনাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে লাশের সুরুতহাল তৈরি করে লাশ মগে প্রেরন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচেছ বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

 

টেকনাফ বার্তা ২৪ এ প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য




Leave a Reply

Your email address will not be published.