১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

রেইনট্রিতে ধর্ষণের শিকার দুই তরুণীর একজন ঘটনার বর্ননা দিলেন(ভিডিও)

Friday,12 May 2017

Teknafbarta24.com

বনানীর হোটেল রেইনট্রিতে ধর্ষণের শিকার দুই তরুণীর একজন দিলেন সেই রাতের লোমহর্ষক বর্ণনা। এই তরুণী বলেন, ‘সেই রাতে হোটেল রেইনট্রিকে মনে হয়েছে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি ও রেস্তোরাঁ। আমার বান্ধবী ও আমার ওপর সাফাত-নাঈমরা হলি আর্টিজানের জঙ্গীদের মতো ঝাঁপিয়ে পড়ে। আমাদের কিছুই করার ছিলো না।’

দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর ধর্ষণের শিকার মাসখানেক আগের ঘটনা। ওই দুই ছাত্রীকে জন্মদিনের পার্টির কথা বলে বনানীর বিলাসবহুল হোটেল রেইনট্রিতে নেওয়া হয়। ওখানেই ধর্ষণের শিকার হন দুই ছাত্রী। ওই ঘটনায় ৬ মে শনিবার রাজধানীর বনানী থানায় পাঁচজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। ১১ মে বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন মামলার আসামি সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ।

ধর্ষিতা দুই ছাত্রীর একজন ওই মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে সাফাত ও নাঈমের বিরুদ্ধে। অন্য চারজন ধর্ষণে সহযোগিতা করেছেন। সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ঘটনার ভিডিও করেছেন।

এই তরুণী আরো জানান, সাফাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানের দাওয়াত পান তিনি। দিনটি ছিল ২৮ মার্চ। এক বান্ধবীসহ তিনি বনানীর ‘রেইন ট্রি’ হোটেলে যান। সেখানে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করা হয় তাদের। এরপর রাতভর আটকে রেখে সাফাত ও নাঈম তাদের ধর্ষণ করেন।

ঘটনার বিস্তারিত বিবরণে মামলায় বলা হয়, আসামিদের মধ্যে সাদমান সাফিকে প্রায় দুই বছর ধরে চেনেন ওই ছাত্রী। তার মাধ্যমে ১০ থেকে ১৫ দিন আগে সাফাত আহমেদের সঙ্গে তাদের পরিচয় হয়। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরে সাফাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে তারা দাওয়াত পান।

বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল মতিন জানিয়েছিলেন, ২৬ বছরের যুবক সাফাত ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী। সে আপন জুয়েলার্সের মালিক চার ভাইয়ের একজন দিলদার আহমেদের বড় ছেলে। মামলার অন্য আসামিরা হলেন- নাঈম আশরাফ (৩০), সাদমান সাকিফ (২৪) নামে সাফাতের দুই বন্ধু ও তার গাড়িচালক বিল্লাল (২৬)।

টেকনাফ বার্তা ২৪ এ প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য